গণধ’র্ষণ করে হ’ত্যার পর তরু’ণীর লা’শ ফেলা হয় ৩০০ ফুটে!
ডেস্ক এডিটর:
জুন ২৮, ২০২০, ১০:০৪ অপরাহ্ণ

সুমী ইসলাম (৩০) স্বামী পরি’ত্যক্ত, তিনি কাজ করতেন উত্তরার একটি বুটিক হাউজে । কমলাপুর রেলওয়ে স্টেশনের জেনারেটর অপারেটর ফারুকুল ইসলাম তার পূর্ব পরিচিত ছিল, আর এ সূত্র ধরে ফখরুল ইসলামের বাসায় তার যাতায়াত ছিল।

সুমিকে গত ১৫ জুন খিলগাঁও নাগদার পাড়ার বাসায় ডেকে নেয় ফারুক। সেখানে আট’কে রাখেন সুমিকে। পালা’ক্রমে ধ’র্ষণ করে ফারুক ও তার দুই সহযোগীকে নিয়ে। ১৮ জুন রাতে মা’রা যান সুমি নি’র্যাতনের একপর্যায়ে। পরের দিন ভোরে রাস্তার পাশে ফেলে রাখা হয় সুমির লা’শ, খিলক্ষেত থানাধীন ৩০০ ফুট এলাকায়।

রোববার আদালতে ফারুক নিজেই এসব তথ্য জানিয়েছে ১৬৪ ধারায় স্বী’কারো’ক্তিমূলক জবান’বন্দিতে।
জবা’নবন্দিতে ফারুক জানায়, তার বাবা-মা থাকতেন ওই বাসায়। কয়েক মাস ধরে তার বাবা-মা তার বড় ছেলে রফিকের বাসায় থাকেন। ফারুকের স্ত্রী তার শ্বশুর বাড়িতে থাকতেন।

যে বাসায় ফারুক এ হত্যা’কাণ্ড ঘটায় সে বাসার ছাদে সে কবুতর পালতেন। তাই কবুতরের খাবার দেওয়ার কথা বলে ওই বাসায় মাঝে মাঝে থাকতেন ফারুক। আর সেখানে প্রায় সময়ই বিভিন্ন তরু’ণী এনে ফুর্তি করতেন ফারুক। সেখানে সে ক্যামেরা নিয়ে আসতেন, পাশের লোকদেরকে বলতেন, এখানে নাটকের শুটিং চলছে।

মা’মলার তদ’ন্ত কর্মকর্তা বলেন, এ হ’ত্যা কা’ণ্ডের সাথে জড়িত ফারুকের দুই সহযোগী এখনো পলাতোক আছে। তাদের দুজনের নাম ইমরান ও সুমন।

সূত্র, যুগান্তর।

আপনার মতামত লিখুন

জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের কনিষ্ঠপুত্র শেখ রাসেলের স্মৃতিচারণ করতে গিয়ে অশ্রুসিক্ত হয়ে পড়েন বড় বোন ও প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা।শুক্রবার বঙ্গবন্ধু আন্তর্জাতিক সম্মেলন কেন্দ্রে শেখ রাসেল জাতীয় শিশু-কিশোর পরিষদ আয়োজিত আলোচনা সভা ও পুরস্কার বিতরণী অনুষ্ঠানে অশ্রুসিক্ত হয়ে পড়েন তিনি।

ঢাকা অফিস

প্রধান সম্পাদক : সাইফুল্লাহ সাদির

১৬৩/৪ দেওয়ান পাড়া , ভাষানটেক , ঢাকা-১২০৬

+৮৮ ০১৭৪৫৪১১১৮৭ , +৮৮ ০১৭১২৪১১৩৭৮

jonokonthonews@gmail.com

কুষ্টিয়া অফিস

ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক : সেলিম তাক্কু

আল- আমীন সুপার মার্কেট, ২য় তলা, পূর্ব মজুমপুর, কুষ্টিয়া,

+৮৮ ০১৭৪৫৪১১১৮৭ , +৮৮ ০১৭১২৪১১৩৭৮

jonokonthonews@gmail.com

© ২০১৯ সর্বস্বত্ব সংরক্ষিত | জনকণ্ঠ নিউজ.কম
Powered By U6HOST