রংপুরে সমাবেশ স্থলে হাজার হাজার নেতা কর্মীর অবস্থান

ছবি সংগ্রহীত
রাত পেরুলেই রংপুর কালেক্টরেট ঈদগাহ মাঠে অনুষ্ঠিত হবে বিএনপির বিভাগীয় সমাবেশ। এই সমাবেশকে কেন্দ্র করে ইতিমধ্যে সমাবেশ স্থল সহ নগরীর ২০টি স্কুল মাঠে অস্থায়ী প্যান্ডেল তৈরি করে সেখানে অবস্থান নিয়ে আছেন কয়েক হাজার দলীয় নেতা কর্মী। এদিকে সমাবেশ স্থলে মোবাইলের নেট ওয়ার্ক বিচ্ছিন্ন করে দেওয়া হয়েছে বলে অভিযোগ করেছেন বিভিন্ন স্থান থেকে আগত নেতা কর্মীরা।

শুক্রবার দিবাগত রাত ১১ টায় এ রিপোর্ট লেখা পর্যন্ত সমাবেশ স্থলে গিয়ে দেখা যায়, কয়েক হাজার নেতা কর্মী খোলা আকাশের নীচে অবস্থান করছেন। তারা মহু মহু শ্লোগান দিচ্ছেন। সেখানে অবস্থান করছেন মহাসমাবেশের সমন্বয়কারী ও বিএনপির যুগ্ম মহাসচিব হারুনর রশীদ এমপি, ভাইস চেয়ারম্যান ডা, জাহিদ হোসেন রংপুর বিভাগীয় সাংগঠনিক সম্পাদক অধ্যক্ষ আসাদুল হাবিব্ দুলূ সহ সাংগঠনিক সম্পাদক আব্দুল খালেক সহ স্থানীয় নেতৃবৃন্দ। তারা বিভিন্ন জেলা উপজেলা থেকে আগত নেতা কর্মীদের সাথে শুভেচ্ছা বিনিময় করছেন। তাদের অবস্থান করার জন্য সাহস জোগাচ্ছেন।

জানা গেছে, শনিবার দুপুর ২ টায় মহাসমাবেশ অনুষ্ঠিত হবার কথা থাকলেও আকস্মিক ভাবে একদিন আগে শুক্রবার থেকে রংপুর জেলা মটর মালিক সমিতি শনিবার সন্ধ্যা পর্যন্ত দুদিন ব্যাপী পরিবহন ধর্মঘট আহবান করে। এর ফলে আগাম প্রস্তুতি হিসেবে মহাসমাবেশে যোগ দেওয়ার জন্য বৃহস্পতিবার রাতেই রংপুর বিভাগের ৮ জেলা বিশেষ করে ঠাকুরগাও, পঞ্চগড়, দিনাজপুর,

গাইবান্ধা ও লালমনিরহাট জেলার বিভিন্ন উপজেলা থেকে ট্রাক বাস ভাড়া করে এবং ট্রেন যোগে রংপুরে এসে পৌঁছেছেন কয়েক হাজার নেতা কর্মী। শুক্রবার সকাল থেকে তারা তারা নগরীর বিভিন্ন অস্থায়ী ক্যাম্পে অবস্থান নেন। শনিবার সকালে সমাবেশ স্থলে যাবেন বলে জানিয়েছেন নেতা কর্মীরা। এ ব্যাপারে বিএনপির সহ সাংগঠনিক সম্পাদক আবদুল খালেক জানান তিনি নিজেও নেতা কর্মীদের সাথে রাতে সমাবেশ স্থলে অবস্থান করবেন।

এ সময় কথা হয় রংপুর বিভাগের পঞ্চগড় জেলার তেতুলিয়া থেকে আসা বিএনপি নেতা মোবাচ্ছের হোসেনের সঙ্গে। তিনি জানান, সমাবেশ সফল করার উদ্দেশ্যে তারা শুক্রবার থেকে পরিবহন ধর্মঘটের খবর জানার পর বৃহস্পতিবার রাতেই তিনটি ট্রাক ভাড়া করে দু শতাধিক নেতা কর্মী শুক্রবার ভোরে সভাস্থলে এসে পৌঁছেছেন। অপরদিকে গাইবান্ধার পলাশবাড়ি থেকে এসেছেন উপজেলা বিএনপির সদস্য মকবুল হোসেন ও আব্দুল মান্নান তারা ২০ জন মালবাহী ট্রাকে করে রাতে রওনা দিয়ে সরাসরি সভাস্থলেই এসেছেন। রাতে সভা স্থলেই থাকবেন বলে জানিয়েছেন।

নগরীর জুম্মাপাড়া সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয় মাঠ, রবাটসনগজ্ঞ স্কুল মাঠ, সিও বাজার, খটখটিয়া, আলমনগর সহ বিভিন্ন এলাকায় নেতা কর্মীদের জন্য অস্থায়ী প্যান্ডেল তৈরি করেছে মহানগর বিএনপি। সেখানে সেচ্ছসেবকরা দেখভাল করছেন। রবাটসনগজ্ঞ স্কুল মাঠে দায়িত্বে থাকা যুবদল নেতা মাসুম জানান, নেতা কর্মীদের জন্য ধানের খড় বিছিয়ে দেওয়া হয়েছে উপরে সামিয়ানার কাপড় দেওয়া হয়েছে। নেতা কর্মীরা রাতে নিজ নিজ অস্থায়ী প্যান্ডেলে অবস্থান করবেন।

এদিকে রংপুর মহানগর বিএনপির আহবায়ক শামসুজ্জামান শামু জানান, সমাবেশ স্থলে হঠাৎ করে সন্ধ্যার পর থেকে মোবাইল নেটওয়ার্ক হাওয়া হয়ে গেছে। ফলে এখান থেকে মোবাইল ফোনে যোগাযোগ করা সম্ভব হচ্ছেনা। এর জন্য সরকারকে দায়ী করে এটা পরিকল্পিত বলে অভিযোগ করেছেন তিনি।

একই কথা বললেন ঠাকুরগাও থেকে আসা মনসুর আলী, সাজ্জাদ সহ কয়েকজন বিএনপি নেতা কর্মীরা। তারা জানান, সভাস্থলে বিকেলের পর থেকে মোবাইল নেট ওয়ার্ক নেই সম্ভবত নেট ওয়ার্ক জ্যামার দিয়ে বন্ধ করে দেওয়া হয়েছে। কারণ অনেক চেষ্টা করেও মোবাইল ফোনে যোগাযোগ করা যাচ্ছেনা
সূত্র ইত্তেফাক

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *