সাবধান, বিএনপি ক্ষমতায় এলে দেশ গিলে খাবে: ওবায়দুল কাদের

ছবি সংগ্রহীত
বিএনপি থেকে সবাইকে সাবধান হওয়ার আহ্বান জানিয়েছেন আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক এবং সড়ক পরিবহন ও সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদের। বিএনপি আবার ক্ষমতায় আসলে দেশশুদ্ধ গিলে খাবে মন্তব্য করে সবাইকে সতর্ক করেন তিনি।
শনিবার (২৯ অক্টোবর) বিকেলে আগারগাঁওয়ে পুরোনো বাণিজ্য মেলার মাঠে ঢাকা জেলা আওয়ামী লীগের সম্মেলনে প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি এ কথা বলেন।

ওবায়দুল কাদের বলেন, সাবধান, বিএনপি থেকে সাবধান। তারা মুক্তিযুদ্ধের চেতনা লিখেছিল। এবার ক্ষমতায় যেতে পারলে দেশশুদ্ধ গিলে খাবে। বড়লোকের বাড়ির সামনে লেখা থাকে কুকুর থেকে সাবধান। আমরা বলি বিএনপি থেকে সাবধান।
তিনি বলেন, আপনারা জানানে রংপুরে একটি সমাবেশ হচ্ছে। সেখানে তিন দিন আগে থেকে লোকজন গিয়ে স্টেজে, মাঠে ও রাস্তায় শুয়ে আছেন। আর দলটির মহাসচিব মির্জা ফখরুল শুয়ে আছেন টাকার বস্তার ওপর। সম্মেলনের নামে বিভিন্ন জায়গা থেকে টাকা আসছে, আর তারা সেই টাকার ওপর শুয়ে আছেন।

তিনি বলেন, বিএনপির সম্মেলনে কতজন লোক হয়েছে তা আমরা দেখেছি। আজকে শুধু ঢাকা জেলা আওয়ামী লীগের এই সম্মেলনে কত লোক হয়েছে আপনারা দেখে যান। এখানে আমাদের নেত্রী শেখ হাসিনা নেই। তারপরও কত লোক।
আওয়ামী লীগ সাধারণ সম্পাদক বলেন, গত ৪৭ বছরে দেশের সবচেয়ে দক্ষ প্রশাসকের নাম শেখ হাসিনা। বঙ্গবন্ধুকন্যার নেতৃত্বে দেশ এগিয়ে যাচ্ছে, আরও এগিয়ে যাবে

আরও পড়ুন 👉👇
সোজা কথা, শেখ হাসিনার পদত্যাগ ছাড়া নির্বাচনে যাব না: ফখরুল
এই সরকারের পতনই আজকের গণসমাবেশের প্রধান লক্ষ্য বলে মন্তব্য করেছেন বিএনপি মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর।
তিনি বলেন, আমাদের সোজা কথা, তত্ত্বাবধায়ক সরকার ছাড়া আমরা কোনো নির্বাচনে যাব না। শেখ হাসিনার পদত্যাগ ছাড়া কোনো নির্বাচনে যাব না। তত্ত্বাবধায়ক সরকারের অধীনে নতুন নির্বাচন কমিশন হবে। সেই নির্বাচনের মাধ্যমে ক্ষমতায় গিয়ে জাতীয় সরকার গঠন করা হবে।

শনিবার (২৯ অক্টোবর) বিকালে রংপুরের কালেক্টরেট ঈদগাহ মাঠে বিএনপির বিভাগীয় গণসমাবেশে প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি এসব কথা বলেন।
মির্জা ফখরুল বলেন, আজকের এই সমাবেশের দিকে তাকিয়ে ছিল সারা দেশের মানুষ, সারা বিশ্বের মানুষ। এই সরকারের ১৫ বছরের অভিজ্ঞতা থেকে বলছি-দেশটাকে শেষ করেছে এই বাকশাল সরকার। গরীবের বিধবা ভাতা, বয়স্ক ভাতা, উন্নয়নের নামে কালভার্ট, ব্রিজ, রাস্তা এমনকি আশ্রায়ণ প্রকল্পের ঘরের টাকাও চুরি করেছে তারা।

তিনি আরও বলেন, সবকিছু খেয়ে ফেলেছে এই বাকশালী সরকার। ছোটবেলায় মুনতাসীর মামুনের নাটক ‘মুনতাসির ফ্যান্টাসি’ দেখেছিলাম। সেখানে মূল চরিত্রে যে ছিল সে শুধুই খায়। সব খাবার শেষে কাগজ খেয়েছে। দলিল-দস্তাবেজ খেয়েছে। এমনকি টেবিল চেয়ারও খেয়েছে। এই সরকারও তেমনি সব খেয়েছে।

বিএনপি মহাসচিব বলেন, এর আগে ১৯৭৪ সালে শেখ মুজিবুর রহমানের শাসনামলেও দেশে দুর্ভিক্ষ হয়েছিল। মানুষ খাবার খেতে না পেরে রাস্তায় পড়েছিল। এখন আবার সেই অবস্থা ফিরে এসেছে। ১০ কেজির চাল খাওয়াতে চেয়ে আওয়ামী লীগ এখন ৯০ টাকার চাল খাওয়াচ্ছে। চিনির দামও বেড়েছে। শাকসবজিও মানুষ কিনতে পারছে না। এটা দুর্ভিক্ষের লক্ষণ।

সমাবেশের আগে বাস ধর্মঘটের সমালোচনা করে মির্জা ফখরুল বলেন, ‘সরকার নাকি বিরোধী দলকে ভয় পায় না। তাহলে দুই দিন আগে গাড়ি বন্ধ করেছেন কেন?

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *