দক্ষিণ আফ্রিকার জয়ে বিপাকে বাংলাদেশ

দক্ষিণ আফ্রিকার জয়ই কাল হয়ে দাড়াল বাংলাদেশের জন্য। মূলত আজ জিম্বাবুয়েকে হারিয়ে পয়েন্ট টেবিলের দুই নম্বরে ছিল বাংলাদেশ। তবে প্রোটিয়ানদের জয়ের ফলে সেই যায়গা ধরে রাখতে পারলো না বাংলাদেশ। তবে ভারত জিতলে সেই জায়গা অক্ষুন্ন থাকতো বাংলাদেশের। এ ম্যাচে রোববার দক্ষিণ আফ্রিকার কাছে ৫ উইকেটে হেরে যায় ভারত।

পার্থ স্টেডিয়ামে এ ম্যাচে ডেভিড মিলার ও মার্করামের অবিচ্ছিন্ন ৭৬ রানের জুটিতেই ম্যাচ থেকে ছিটকে যায় ভারতীয়রা। তবে এ পরাজয়ে ভারতের ফিল্ডিংকে দায়ী করা যায় অনেকটা। এ জয়ের ফলে ৫ পয়েন্ট নিয়ে টেবিলের শীর্ষে এখন দক্ষিণ আফ্রিকা। পয়েন্ট এক থাকলেও রান রেটের কারণে বাংলাদেশের চেয়ে এক ধাপ এগিয়ে দ্বিতীয় অবস্থানে আছে ভারত। দু দলেরই পয়েন্ট আছে ৪ করে।

শুরুতেই টসে জিতে আগে ব্যাটিংয়ের সিদ্ধান্ত নেয় ভারত। তবে তা শুরু হয় ব্যাটসম্যানদের ব্যর্থতা দিয়ে। সূর্যকুমার যাদবের ফিফটিতে ভড় করে নির্ধারিত ২০ ওভারে ৯ উইকেটে ১৩৩ রান করে ভারত। ব্যাট করতে নেমে অ্যাইডেন মার্করামের ফিফটি এবং ডেভিড মিলারের দুর্দান্ত ইনিংসে ২ বল হাতে রেখে জয় নিশ্চিত করে প্রোটিয়ানরা।

পার্থে এদিন দলীয় সর্বোচ্চ ৬৮ রান আসে সূর্যের ব্যাট থেকে। ৪০ বলে ৬টি চার ও ৩টি ছয়ে এই রান করেন সূর্য। তবে তাদের দ্বিতীয় সর্বোচ্চ রান আসে অধিনায়ক রোহিতের ব্যাট থেকে মাত্র ১৫ রান।

লক্ষ্য তাড়া করতে নেমে শুরুতেই ব্যাটিং বিপর্যয়ে পরে দক্ষিণ আফ্রিকা। প্রথম দুই ওভারের মধ্যে ৩ রানের ব্যবধানে হারিয়ে বসে ২ উইকেট। আর্শদীপের দুর্দান্তে সুইংয়ে পরাস্ত হন দুই ইনফর্ম ব্যাটসম্যান কুইন্টন ডি কক (১ রান) এবং রাইলি রুশো (শূন্য রান)। অফফর্মের পিকে থাকা বাভুমাও করতে পারেননি ১০ রানের বেশি।

তবে বিপর্যয় সামাল দিয়ে ভালোভাবেই ঘুরে দাড়ায় প্রোটিয়ানরা। চতুর্থ উইকেট জুটিতে মার্করাম এবং মিলার ৭৬ রানের জুটি গড়ে ভারতকে ম্যাচ থেকে ছিটকে দেন। মার্করাম ফিফটি হাঁকিয়ে ৫২ রান করে ফিরলে ভাঙে জুটিটি। সঙ্গী ফিরলেও মিলার আরেক প্রান্তে ঠান্ডা মাথায় খেলে ফিফটি হাঁকিয়ে ৪৬ বলে ৩টি করে চার-ছয়ে ৫৬ রান করে দলকে জিতিয়েই মাঠ ছাড়েন।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *