‘আওয়ামী লীগের সভায় এমপি ও মে’য়র গ্রু’পের সং’ঘর্ষ, আ’হত ৭

‘টাঙ্গাইলের ভূঞাপুরে উপজেলা আওয়ামী লীগের বর্ধিত সভাকে কেন্দ্র করে স্থানীয় সংসদ সদস্য ও আওয়ামী লীগের সভাপতি পক্ষের নেতাকর্মীদের মধ্যে সংঘ’র্ষের ঘটনা ঘটেছে। এই ঘ’টনায় উভয়পক্ষের সাত নেতাকর্মী আ’হত হ‌য়ে‌ছে। আজ শনিবার (২৯ অক্টোবর) দুপুরে উপজেলা আওয়ামী লীগ কার্যা’লয়ে বর্ধিত সভা চলা’কালে এই ঘটনা ঘটে। আহ’তদের সংখ্যা আরো বাড়তে পারে। সংঘ’র্ষের ঘটনায় বর্ত’মানে এলাকায় থ’মথমে অবস্থা বিরাজ করছে।

‘স্থানীয় সূত্রে জানা যায়, স্থানীয় সংসদ সদস্য তানভীর হাসান (ছোট মনির) ও উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি পৌর মেয়র মাসুদুল হক মাসুদের পক্ষের নেতা’কর্মীদের সঙ্গে এই ঘট’না ঘটে। পরে পুলিশ ঘটনা’স্থলে গি‌য়ে দলীয় কার্যালয় নিয়ন্ত্রণে নেয়। এলাকায় অতিরি’ক্ত পুলিশ মোতা‌’য়েন করা হ‌য়ে‌ছে।উপজেলা আওয়ামী লীগের যুগ্ম-সম্পাদক সা‌হিনুল ইসলাম তরফদার বাদল বলেন,

‘জেলা আওয়ামী লীগের সম্মেলনকে কেন্দ্র ক‌রে উপজেলা আওয়ামী লীগ ব‌র্ধিতসভার আহ্বান ক‌রে। সে মোতা‌বেক সভা চলছিল। প‌রে স্থানীয় সংসদ সদস্য তানভীর হাসান তার অনুসা’রী‌দের নি‌য়ে দলীয় কার্যালয়ে স্লো’গানসহ প্রবেশ করেন। এতে সেখানে নেতাকর্মী‌দের মধ্যে বাকবিতণ্ডার একপর্যায়ে ধ’স্তাধ’স্তির ঘটনা ঘটে। সেখানে উপ’স্থিত এম‌পির সঙ্গেও ক”র্মী‌দের ধস্তাধ’স্তির ঘটনা ঘটে। প‌রে জেলা আও’য়ামী লীগের নেতা ও তার অনু’সারী‌দের নি‌য়ে এম‌পি মি‌ছিলস’হকা‌রে কার্যালয় থেকে বের হ‌য়ে যান। পুলিশ এসে আমা‌দের কার্যালয় থেকে বের হ‌য়ে যাওয়ার জন্য অনুরোধ করেন। প‌রে আমরা কা’র্যালয় ছেড়ে বের হলে পুলিশ’ সে‌টি নিয়’ন্ত্রণে নি‌য়ে নেয়।’

তবে উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি ও পৌর মেয়র মাসুদুল হক মাসুদ দাবি করেন, ‘বর্ধিত সভা চলাকালে স্থানীয় সংসদ সদস্য তানভীর হাসানের নেতৃত্বে তার অনুসারীরা আমাদের নেতাকর্মীদের ওপর অতর্কিত হা মলা চালিয়ে মার ধর শুরু করে। এ ঘটনায় আমার ছয় নেতাকর্মী আ হত হন।’সংসদ সদস্য তানভীর হাসান দাবি করেন, ‘জেলা পরিষদের নবনির্বাচিত সদস্য বাবলু ও উপজেলা

আওয়ামী লীগের সভাপতি মাসুদুল হক মাসু‌দের লোকজনের কারণে এই বিশৃ ঙ্খলার সৃষ্টি হয়েছে। জেলা আওয়া মী লীগের নেতৃবৃন্দ উপস্থিত ছিলেন। তারা বিষয়টি দেখেছেন। আর যেন কোনও বিশৃঙ্খলার সৃষ্টি না হয় এর আহ্বান জানিয়েছি।’ ভূঞাপুর থানার ওসি মোহাম্মদ ফরিদুল ইসলাম বিষয়টি নিশ্চিত করেন। তিনি জানান, ‘দলীয় কার্যালয়ে আওয়া মী লীগের বর্ধিত সভা ছিল। সেখানে আগে

থেকেই মেয়র মাসুদুল হক মাসুদের লোকজন উপস্থিত ছিলেন। পরে স্থানীয় সংসদ সদস্য নেতা কর্মীদের সঙ্গে নিয়ে সেখা নে গেলে উত্তেজনার সৃষ্টি হয়। পরে আমরা পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনি। বর্তমানে পরিস্থিতি স্বাভাবিক রয়েছে। এই ঘটনায় আওয়ামী লীগের বর্ধিত সভা টি বাতিল হয়।’

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *