জয়ের পরও ভোট কেনার টাকা ফেরত পেতে নারী ইউপি সদস্যকে হুমকি!

নির্বাচিত হওয়ার পরও ভোট কেনার জন্য দেয়া ৫০ হাজার টাকা ফেরত না দেয়ায় এক মহিলা ইউপি সদস্যকে হুমকি দেয়া ও শ্লীলতাহানির অভিযোগ উঠেছে রংপুরের কাউনিয়া থেকে নির্বাচিত জেলা পরিষদ সদস্য আলতাফ হোসেনের বিরুদ্ধে।

সোমবার (৩১ অক্টোবর) এক সংবাদ সম্মেলনে এ অভিযোগ করেন ভুক্তভোগী মহিলা ইউপি সদস্য মোরশেদা বেগম। তবে অভিযোগ অস্বীকার করে অভিযুক্ত আলতাফ হোসেনের দাবি, অভিযোগকারী সম্পর্কে আমার মামি। জমিজমা ও টাকা-পয়সা সংক্রান্ত সমস্ত ঘটনা ভোটের আগে ঘটেছিল।

এদিকে, টাকার বিনিময়ে ভোট কিনে নির্বাচিত হওয়ায় আলতাফ হোসেনের সদস্য পদ বাতিল করে ওই ওয়ার্ডে পুনরায় ভোট গ্রহণের দাবি জানিয়েছেন তার নিকটতম প্রতিদ্বন্দ্বী গোলাম সারোয়ার আনছারী।

সোমবার দুপুরে রংপুরের কাউনিয়ার হারাগাছ ইউনিয়নের ৪, ৫ ও ৬নং ওয়ার্ডের সংরক্ষিত মহিলা সদস্য মোরশেদার এ সংবাদ সম্মেলন ঘিরে এলাকায় চাঞ্চল্য তৈরি হয়েছে।

সংবাদ সম্মেলতে মোরশেদা হক বলেন, গত ১৭ অক্টোবর অনুষ্ঠিত রংপুর জেলা পরিষদ নির্বাচনের ২ নং ওয়ার্ডে (কাউনিয়া) প্রতিদ্বন্দ্বিতা করে বিজয়ী হন আলতাফ হোসেন। নির্বাচনের আগে ১৫ অক্টোবর আলতাফ হোসেন হারাগাছ ইউপির সদস্য মোজাম্মেল হকের মাধ্যমে অপর ইউপি সদস্য জহুরুল হকের বাড়িতে রাত সাড়ে তিনটায় আমাকে জিম্মি করে আমাকেসহ ৭ পুরুষ ও মহিলা

সদস্যকে ডেকে আনেন। সেখানে আলতাফ হোসেন তাকে ভোট দেয়ার জন্য আমাদের প্রত্যেককে ৫০ হাজার করে টাকা দেন। আমি তার সাথে প্রতিশ্রুতিবদ্ধ হয়ে ভোট দেই এবং তিনি নির্বাচিত হয়েছেন।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *