হারিস রউফের বলের আ”ঘাতে ডি লিডের চোখে ৬ সে”লাই

ছবি সংগ্রহীত
এবার পাকিস্তানের বিরুদ্ধে ব্যাটে-বলে সুবিধা করতে পারেনি নেদারল্যান্ডস। গতকাল রবিবার ম্যাচটাও ডাচরা হেরে গেছে। তবে ম্যাচে পাকিস্তানের পেসার হারিস রউফের বাউন্সারে চোখে আঘাত পান ডাচ অলরাউন্ডার বাস ডি লিড। এমনকি তার চোখে ৬ সেলাই দিতে হয়েছে।

গতকাল রবিবার পার্থে পাকিস্তান-নেদারল্যান্ডস ম্যাচে এমন অনাকাঙ্খিত ঘটনা ঘটেছে। পরে ডি লিডের কনকাশন বদলি হিসেবে লোগান ফন বিককে মাঠে নামিয়েছে ডাচরা। ইনিংসের তৃতীয় ওভারে মাইবার্গ আউট হলে ডি লিড উইকেটে যান।

৬ রানে অপরাজিত থাকার সময় চোখে আঘাত পান তিনি। পাওয়ার প্লে’র শেষ ওভারে রউফের বল ঠিকমতো খেলতে পারছিলেন না ডি লিড। ওভারের পঞ্চম বলটি ছিল ১৪২ কিমি. গতির।
শরীর তাক করা এই তীব্র গতির বাউন্সারে পুল খেলার চেষ্টা করেছিলেন ডি লিড। কিন্তু বল আঘাত হানে তার হেলমেটের গ্রিলে। তখনই গুরুতর চোটের আভাস পাওয়া গিয়েছিল। হেলমেট খোলার দেখা যায় তার ডান চোখের নিচে কেটে গেছে।

এরপর ফিজিও, চিটিৎসকরা তাকে নিয়ে মাঠ ছাড়েন। ম্যাচের পরের অংশে ডাগআউটে ছিলেন ডি লিড। কিন্তু টিভি ক্যামেরায় দেখা গেছে, তার চোখ ফুলে গেছে, চোখের নিচে কালো দাগ পড়েছে।
এদিকে বিশ্বকাপের প্রথম রাউন্ডে ডাচদের দুই জয়ে বড় অবদান ছিল ডি লিডের। বিশেষ করে বল হাতে নিয়মিত উইকেট নিয়েছেন তিনি

আরও পড়ুনঃ 👉👇
পরিত্যক্ত হতে পারে বাংলাদেশ-ভারত ম্যাচ
এখন পর্যন্ত সুপার টুয়েলভের দুই ম্যাচ জিতে টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপের সেমিফাইনালের লড়াইয়ে টিকে আছে বাংলাদেশ। যদিও পরবর্তী দুই ম্যাচ খুবই কঠিন হতে যাচ্ছে। আগামী ২ নভেম্বর বাংলাদেশের প্রতিপক্ষ ভারত আর ৬ নভেম্বর পাকিস্তান। অ্যাডিলেডে অনুষ্ঠিতব্য বাংলাদেশ-ভারত ম্যাচটিতে দেখা দিয়েছে বৃষ্টির শঙ্কা।

এদিকে অস্ট্রেলিয়ার স্থানীয় আবহাওয়াবার্তা বলছে, বৃষ্টি এসে উভয় দলের জন্য সেমির লড়াই আরও কঠিন করে দেবে।
গতকাল রবিবার দক্ষিণ আফ্রিকার কাছে হেরে কিছুটা ব্যাকফুটে চলে গেছে ভারত। এর মাঝে আবহাওয়া বার্তা বলছে, বাংলাদেশ-ভারতের ম্যাচের দিন অ্যাডিলেডে বৃষ্টির সম্ভাবনা ৬০%।

এদিন স্থানীয় সময় অনুযায়ী ম্যাচটি শুরু হবে সন্ধ্যা সাড়ে ৬টায়। বাংলাদেশ সময় দুপুর ২টায়। সারাদিনই অ্যাডিলেডের আকাশ কালো মেঘে ঢাকা থাকবে। একই সঙ্গে ওয়ার্ল্ডওয়েদার অনলাইনের প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, সন্ধ্যায় হালকা বৃষ্টির সম্ভাবনা থাকলেও, রাতে বৃষ্টি দাপট বাড়তে পারে।

এদিকে ম্যাচটি যদি বৃষ্টিতে পরিত্যক্ত হয়, তাহলে দুই দলকেই এক পয়েন্ট করে ভাগ করে নিতে হবে। সেক্ষেত্রে দুই দলেরই পয়েন্ট হবে ৫। তবে রান রেটে বাংলাদেশর চেয়ে অনেক এগিয়ে ভারত।

এরপর শেষ ম্যাচে জিম্বাবুয়েকে হারাতে পারলেই রোহিত শর্মারা সেমিফাইনালে চলে যাবেন। বৃষ্টিতে ম্যাচ যদি পণ্ড হয় আর বাংলাদেশ যদি একই সমীকরণে সেমিতে যেতে চায়, তাহলে রান রেট বাড়িয়ে অবশ্যই পাকিস্তানকে হারাতে হবে। রান রেট বাড়াতে না পারলে কিছুই হবে না।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *