‘অজুহাত খুঁজলে বড় হওয়া যায় না: হার্শা ভোগলে

অ্যাডিলেডে বুধবার বাংলাদেশ-ভারত ম্যাচে ‘ফেইক ফিল্ডিং’ এর ঘটনা ঘটছে। বৃষ্টি শুরু হওয়ার আগে ‘ফেইক ফিল্ডিং’ করেছিলেন বিরাট কোহলি। সঙ্গে সঙ্গে আম্পায়ারকে অভিযোগ করেন নাজমুল হোসেন শান্ত। সাড়া না দিয়ে উল্টো আম্পায়ার নাকি বলে দেন, ‘আমার চোখে তো পড়েনি। এই ‘ফেইক থ্রো’র কারণে ভারতের পেনাল্টি হলে ৫ রান জমা হতো বাংলাদেশের সংগ্রহে। বিষয়টি নিয়ে এখনও আলোচনা চলছেই।

এই ইস্যুতে কথা বলেছেন ভারতীয় ক্রিকেট বিশ্লেষক হার্শা ভোগলে। কোহলির ফেইক ফিল্ডিং সম্পর্কে হার্শা নিজের ভেরিফায়েড টুইটার অ্যাকাউন্টে লেখেন, ‘ফেইক ফিল্ডিংয়ের ঘটনায় সত্যিটা হচ্ছে কেউ সেটা দেখেনি। আম্পায়াররা দেখতে পায়নি, ব্যাটসম্যানরাও নয় এবং আমরাও না। ৪১.৫ আইন অনুযায়ী ফেইক ফিল্ডিংয়ের শাস্তি আছে, কিন্তু কেউ তো দেখেনি। তাহলে কী করবেন!’

মাঠ ভেজা থাকা প্রসঙ্গে হার্শা লেখেন, ‘মাঠ ভেজা থাকার ব্যাপারে কেউ অভিযোগ করতে পারে বলে আমি মনে করি না। সাকিব ঠিক ছিল, যখন সে বলেছিল ব্যাটিং দলের পক্ষে যাবে এটি। শেষ পর্যন্ত আম্পায়ার ও কিউরেটররা চেষ্টা করে ম্যাচ চালিয়ে নেওয়ার। এবং তারা খুব ভালোভাবে সামাল দিয়েছে, কম সময়ই নষ্ট হয়েছে। ’

এই ইস্যুতে হার্শার সর্বশেষ টুইটটি ছিল বাংলাদেশি সমর্থকদের উদ্দেশ করে। তিনি লেখেন, ‘সুতরাং আমার বাংলাদেশের বন্ধুরা, দয়া করে লক্ষ্য পূরণ না হওয়ার জন্য ফেক ফিল্ডিং বা ভেজা মাঠকে কারণ হিসেবে দেখবেন না। ব্যাটসম্যানদের একজন যদি শেষ পর্যন্ত থাকত, তাহলে হয়তো বাংলাদেশ জিততে পারত। আমরা যখন অজুহাত খুঁজতে থাকি, তখন বড় হওয়া যায় না।’

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *